আলোর নামে অন্ধকার রাষ্ট্র 

  • শুনিতে পাই  ইংরেজরা অনেক বছর পৃর্বে  আমাদের উপর নির্যাতন  করত তারা অনেক অসভ্য বর্বর ছিল 

আমাদের উপর অনেক  অত্যাচার  করত সেটি  তাদের কাছে  সাভাবিক  ছিল কারন আমরা তো আর তাদের  দেশের  নাগরিক ছিলামনা  তাই আমাদের উপর নির্যাতন  করতে  তাদের  মায়া  লাগতো না ।  শুধু তারাই নয়  পাকিস্তানি  ও আমাদের উপর অনেক নির্যাতন  করত অন্যায়  ভাবে  হত্যা, খুন, গুম, মা বোন দের  কে ধর্ষন  শুধু  তাই ছিল না ঘুমন্ত মানুষের উপর বাড়ীতে আগুন  লাগানো   তাদের  যে  ভাবে ইচ্ছে  সে ভাবে তারা নির্যাতন  করতো  শুনতে পাই আমাদের দেশের  নাকি অনেকই আবার (রাজাগার)  তাদের কে সাহায়্য করত তাদের  নিজেদের প্রানের ভয়ে  কেউ  বা অর্থের  লোভে  যাই হোক তারাতো সবাই অসভ্য  বর্বর ছিল, ছিল নির্দয়াবান নিকৃষ্ট  তা না হলে  এভাবে কেউ নির্যাতন করতে পারে?   তখন থেকে  শুরু করে আজ পর্যন্ত আমরা ক্রমশ সভ্য হইতে  সভ্যতর হয়েছি   শিক্ষায়,  অর্থ সম্পদে, আমরা পৃথিবীর অন্যান্য দেশে ও জাতির  সমকক্ষ  হইতে             চলিয়াছি।  এখন আমাদের সভ্যতা ও ঔশ্বর্য  রাখিবার স্থান নাই।  সত্যইতো  এইযে  অভ্রভেদী পাঁচতলা  হইতে বাড়ী, যোগাযোগের জন্য . এসি  গাড়ী, মূহরত মধ্য তথ্য আদান প্রদান এর জন্য রয়েছে ইন্টারনেট, ধনি ব্যাক্তি দের  জন্য অট্র্যালিকা বড়ী,  আসলে কি সভ্যতা  ও মানবতা মানে এই?  ইংরেজরা  আমাদের  শাসক নামে শোসক  ছিল  তখন কার তুলনায়  এখন  অমিল  কোথায়?   তখন  তো  আর  তাদের মানবতা ছিল না।  আজ তো  আমাদের মানবতা রয়েছে,  আজ  তো  আমরা সভ্য হয়েছি,   তারা তো  ছিল নির্দয়াবান  তাই তো  আমাদের উপর  নির্যাতন করতে দিধা করেনি,   কিন্তু  আজ তো আমরা ভাই ভাই তবে কেন  আমাদের মধ্য এত  সহিংসতা? কেন  এত রক্ত পাত, কেন নির্মুম হত্যা?  নাকি আজ  আমরা সভ্য ও মানবতর  হয়েছি  তাই বলে?  তাদের তো আর কোন মানবতা ছিল না,  তবে আমাদের মানবতা কি এই?  শুনেছি  মির্জাফর ছিল  দুর্নীতির সেরা  আমরা  কি দুর্নীতিতে  শীর্ষক স্থান  দখল করি  নাই কি?   তাদের  যদি  মানবতা  না থাকে  তবে  আমাদের  মানবতা  কোথায়?   পাকিস্তানি  আমাদের উপর  অন্যায়  ভাবে  নির্যাতন। করত,  অন্যায় ভাবে হত্যা করত, ছিল না  আমাদের কোন স্বাধিনতা  ছিল না। ছিল না মানব অধিকার তবে আজ কি আমরা স্বাধিনতা  পেয়েছি  কি?  পেয়েছি মনব অধিকার ?  যদি  স্বাধিন অর্থ  শুধু  পরাধিন  হতে মুক্তি  পাওয়া  যদি  তাই হয় তবে  স্বাধিন।তবে আমরা কি রকম স্বাধিন  কি রকম আমাদের মানব অধিকার  তা আপনারা খুব ভাল করেই জানেন।  কোথায় আমাদের  মানব অধিকার ?  কেন আমাদের মাঝে এত সহিংসতা?      রাজনীতি কারনে কেন দেশের মধ্য  এত অসান্তি?  কেন সাধারন মানুষের উপর নির্যাতন ?  আসলে  এর  মুল কারণ কি? আমি  মনে করি নির্শ্চয় এর  কারন  হচ্ছে  নিজেকে বড় মনে করা মানুষে মানুষের আত্নার ভালবাসা  না থাকার কারনে,  একে  অপর কে হিংসা করা,  ধূর্ম – বর্ন –  গোষ্ঠীর দোহাই দিয়ে  মানুষ মানুষকে পরস্পর  থেকে দৃরে ঠেলে দিচ্ছে  এসব থেকে কেবল মুক্তি পেলেই আমাদের মাঝে  শান্তি  বিরাজ করবে। বিশ্বাস মানুষ  হিসেবে  স্বীকৃতি পেয়ে পরিচিত হয়ে  ওঠার  চেয়ে   সম্মানের আর কিছু হতে পারে না।  আমার   বিশ্বাস মানুষ  হিসেবে  স্বীকৃতি পেয়ে পরিচিত হয়ে  ওঠার  চেয়ে   সম্মানের আর কিছু হতে পারে না। 

Advertisements

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s